অনু গল্প - লাল সিল্কের ওড়না

Md. Ali Sohel

নতুন সদস্য
#1
লাল সিল্কের ওড়না
আলী সোহেল
images-14-jpeg.511
আবির বাসার সমনে দাঁড়িয়ে আছে, হটাৎ দেখে, আট দশ বছরের হবে পিচ্চি মেয়ে ফুল বিক্রি করছে। পিচ্চিটাকে ডেকে বললেন, তুমি ফুল বিক্রি কর? । মেয়েটা বললো জ্বি স্যার আপনার কি ফুল লাগবে? স্যার।
আবির বললো না আমার লাগবে না আমার তো ফুল দেয়ার মতো কেও নেই। আবির বললো ফুল দিয়ে কি করবো? তবু্ও মেয়েটি জোর করে বলছে ফুল কেনার জন্য।

তাই আবির বললো আচ্ছা আমাকে
একটি গোলাপ দাও দাম কত? মেয়েটি বললো বিশ টাকা স্যার, আবির বিশ টাকা দিলেন মেয়েটি খুশি হয়ে চলে গেল। আবির দাঁড়িয়ে ভাবছে আর ফুলের ঘ্রাণ নিচ্ছে হটাৎ আকাশ থেকে ওড়ে এসে লাল সিল্কের ওড়না এসে তার উপর পড়লো। আশে পাশে
তাকিয়ে দেখছে আবির, কিন্তু আশেপাশে কাওকে দখা যাচ্ছে না। আবির অবাক হয়ে ভাবতে লাগলো এটা কার ওড়না, বা কোথা থেকে এলো। এমন সময় পাশের বাসার ছাদের উপর চোখ পড়লো আবিরের। চেয়ে দেখে মাথায় হাত উঠিয়ে আবিরের দিকে তাকিয়ে আছে মেয়েটি, আবির ও ফেল ফেল করে তাকিয়ে আছে মেয়েটির দিকে। আবির মনে মনে ভাবছে এটা তার ওড়না ই হবে।

আবির দাঁড়িয়ে আছে, মেয়েটি ছাদ থেকে নেমে এসে আবিরের পাশে এসে দাঁড়ালো আবির কিছু বলছে না, মেয়েটাও লজ্জায় কিছু বলছে না। লাজুক মেয়েটি মাটির দিকে তাকিয়ে বললো আমার ওড়নাটা দিন ওটা আমার। আবির কিছুক্ষণ স্তব্ধ হয়ে তাকিয়ে রইলো, হটাৎ দিশা ফিরে পেলো আবির। বললো ও আচ্ছা ওড়নাটা তাহলে আপনার। এই নিন, ওড়নাটা দিয়ে আবির বললো আচ্ছা আপনাকে তো ঠিক চিনলাম না,আর এর আগে আপনাকে তো এখানে কখনো দেখি নি আপনি কে বলুনতো? মেয়েটি বললো আসলে আমি এখানে বেড়াতে এসেছি, ওই বাসার আজমল সাহেব আমার খালো জান হয়। আমি ছাদে কাপড় শোকাতে আসছিলাম, হটাৎ বাতাসে আমার ওড়না ওড়ে এসে আপনার ওপর পরে যায় আসলে আমি অনেক দুঃখিত আমি সরি। আবির বললো না না ঠিক আছে সরি বলার দরকার নেই, আপনার তো কোন দোষ নেই। ও আচ্ছা আপনি আজমল আংকেল এর বাসায় বেড়াতে আসছেন। আবির নরম সুরে বললো, আচ্ছা আপনার নামটা জানতে পারি, মেয়েটা বললো আমার নাম অনামিকা। আবির জিজ্ঞেস করল আপনি কি করেন? অনামিকা বললো অনার্স থার্ড ইয়ারে পরছি। আবির ও তাহলতো খুবই ভালো। অনামিকা কিছু মনে না করলে একটা কথা বলি? আপনি না অনেক সুন্দর। আমিতো আপনাকে ভালোবেসে ফেলেছি, আবির গোলাপটা হাত বাড়িয়ে অনামিকার সমনে ধরে তাকে সোজা I Love You বলে দিলো। অনামিকা তো লজ্জায় লাল হয়ে গলো। অনামিকা কি করবে ভাবতে পরছিল না, অনামিকা এই প্রথম কোন ছেলের কাছ থেকে প্রেমের অফার পেয়েছে। অনামিকা কিছুক্ষণ তাকিয়ে থেকে আবিরের হাত থেকে গোলাপটা নিয়ে মিসকি হেসে এক দৌড়ে বাসার ভিতরে চলে আসেন। আর আবির অনামিকার পিছু পিছু তাকিয়ে রইলো। আর এভাবেই আবির আর অনামিকার মধ্যে ভাবের আদান প্রদান শুরু।
 
Last edited by a moderator:

বর্ণমালা এন্ড্রয়েড এপ

ফেসবুকে বর্ণমালা ব্লগ

নতুন যুক্ত হয়েছেন

Top