"দ্যা সোলজার অব হিউম্যানিটি"

ফাহাদ তানিম

Moderator
বর্ণমালা স্টাফ
#1
fb_img_1586760531614-01-jpeg.390



দ্যা সোলজার অব হিউম্যানিটি


দ্যা সোলজার অব হিউম্যানিটি অর্থাৎ মানবতার সৈনিক।বৈশ্বিক দুর্যোগে কুপোকাত গোটা পৃথিবী,অঘোষিত তৃত্বীয় বিশ্বযুদ্ধের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।কোনো প্রস্তুতি ছাড়াই লক্ষাধিক মানুষের জিবন চলে যাচ্ছে অদৃশ্য শত্রুর সাথে লড়াই করে।প্রত্যেকটি মানুষ তার নিজের পরিবারের জীবন বাঁচাকে আপ্রাণ লড়াই করে চলছে ঠিক সেই মুহুর্তে মানুষ ও মানবিক দিক বিবেচনা করে গরিব ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো হচ্ছে হিউম্যানিটি বা মানবতা।

আজকের এমন একজন ব্যক্তির গল্প বলব যার কথা না বললে হয়ত অন্যায় হয়ে যাবে স্রষ্টার শ্রেষ্ঠ সৃষ্টির প্রতি।

জুবায়ের আদনান অনিক,বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি।জন্ম বরগুনার শহরের আদি বনেদি পরিবারে।তার পিতা আলহাজ্জ্ব মোঃজাহাঙ্গির কবির,সাধারন সম্পাদক বরগুনা জেলা অাওয়ামিলীগ।
সোনার চামুচ মুখে নিয়ে জন্মগ্রহণ করলেও তাকে কখনো একজন সাধারণ মানুষের সাথে আলাদা করা যায় নাই।সর্বদা হাস্যোজ্জ্বল মেধাদীপ্ত এবং সরলতায় ও নিজ গুনে গুনান্বিত এই তরুনকে ভালোবাসে বরগুনার আপামর সর্বস্তরের জনগণ।

বর্তমানে (nCoV-19) বা করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে পৃথিবীর ন্যায় বাংলাদেশ ও বিপদসঙ্কুল ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।এমতাবস্থায় অনেক রাজনিতীিদ অনেক সুশীল লেজ গুটিয়ে ঘরে বসে থাকলেও এই মুহুর্তে মানবতার সৈনিক হয়ে বরগুনার মানুষের পাশে রয়েছেন ছাত্রনেতা জুবায়ের আদনান অনিক।সমস্ত বরগুনা জেলা জুড়ে তার নেতৃত্বে কাজ করছে কয়েক হাজার ছাত্রলীগের স্বেচ্ছা সেবক।

বরগুনা শহরের করোনার বিরুদ্ধে সর্ব প্রথম যেই ব্যাক্তি উদ্যোগ নেন সেই ব্যাক্তি হলেন অনিক।প্রথমে বরগুনার বাজারের সমস্ত সড়ক ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সাহায্যে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করেন। বরগুনার প্রতিটি মানুষকে সচেতনতার জন্য লিফলেইট বিতারন করেন তিনি।বরগুনায় সাধারন মানুষের মাঝে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার,সাবান বিতারন করেন।
received_656309938455780-jpeg.391

যখন দেখা গেল বরগুনা শহর লকডান করে দেওয়া হয়েছে সাধারন খেঁটে খাওয়া মানুষের ইনকাম বন্ধ হয়ে গেছে তিনি ব্যাক্তি উদ্যোগে তখন সাধারন খেঁটে খাওয়া মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী উপহার নিয়ে যান দ্বারে দ্বারে।এবং সর্বদা সাধারন মানুষের পাশে থেকে সকল পরিস্থিতি মোকাবেলায় তিনি প্রস্তুত রযেছে।

বরগুনা সদর উপজেলায় কাজ করলেও তিনি উপলব্ধি করলেন বরগুনার ছয়টি উপজেলায় সাধারন মানুষ ভালো নেই, তাই তার নির্দেশনায় তিনি ছয়টি উপজেলায় ছাত্রলীগের সদস্যদের নিযে টিম গঠন করলেন। এবং প্রত্যেককে ব্যাক্তি উদ্যোগে এগিয়ে আসার আহ্বান জানালেন।

এর ধারাবাহিকতায় সকল নেতাকর্মী উপজেলা, ইউনিয়ন,ওয়ার্ড,পর্যায় সচেতনতা লিফলেট জীবানু নাশক স্প্রে,মাস্ক,সাবান, স্যানিটাইজার,খাদ্য সামগ্রী অসহায় মানুষের দ্বারে দ্বারে দিয়েছেন।যা এখনো চলমান।

ইতিমধ্যে সভাপতি অনিকের নির্দেশনায় তালতলী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সরোয়ার হোসেন স্বপন ৫০০ দুস্থ পরিবারে চাল পৌঁছে দিয়েছেন।এবং যারা মধ্যবিত্ত সবার সামনে উপহার গ্রহনে যারা দ্বিধাবোধ করেন তাদের জন্য তিনি একটি অনলাইন টিম গঠন করেন। এবং কল পাওয়া মাত্রই গোপনে পরিবারটিকে সাহায্য করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এবং তালতলী উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মিঠু সভাপতি অনিকের নির্দেশনায় তালতলী উপজেলায় মানুষদের সচেতনতা লিফলেট,জীবানু নাশক স্প্রে,ও অসহায় মানুষের দ্বারে দ্বারে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে যাচ্ছেন।

fb_img_1586712921960-jpg.392


বেতাগী উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক বিশ্ব্যজিৎ রায় সভাপতি অনিকের নির্দেশনায় ইতিমধ্যে কয়েক হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার সাধারন জনগনের মাঝে বিতারন করেন। তিনি খাদ্য সামগ্রী বিতারনের ও সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন।

fb_img_1585133503441-jpg.393


ইতিমধ্যে জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি অনিকের নির্দেশনায় কাকচিড়া সাংগাঠনিক থানা ছাত্রলীগের সভাপতি তুহিন পহলান ও সাধারন সম্পাদক মিঠুন কাজ করে যাচ্ছে নিরলস।এবং লেমুয়া ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি সহল অনিকের নির্দেশনায় কাজ করে যাচ্ছে সাধারন মানুষের পাশে থেকে।

received_2681319615339904-jpeg.394


বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের অাদনান অনিকের নির্দেশনায় সাধারন মানুষের পাশে কয়েকশত নেতা কর্মী নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের ওয়ালিদ মাক্কী,মধু,শাহাযাদা আরও অনেক নেতাকর্মী।
received_171008690592440-jpeg.396



ইতিমধ্যে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের অাদনান অনিকের নির্দেশনায় বামনা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক খাদ্য সামগ্রী বিতারন করেন এবং এখনো নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন সাধারন মানুষের পাশে থেকে।

fb_img_1586762256428-jpg.397


আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মাহাবুব খাদ্য সামগ্রী বিতারন করেন এবং সহ- সভাপতি মতিন জাহিদ আরো নেতা কর্মীরা মাঠে কাজ করে যাচ্ছেন নিরলস শুধু মাত্র জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের অাদনান অনিকের নির্দেশনায়।




এবং বরগুনা সদর উপজেলায় নিজেই জুবায়ের অাদনান অনিক তার কর্মীদের নিয়ে নিজ অর্থায়নে কয়েক হাজার সাধারন মানুষের কাছে পৌঁছে দিয়েছেন তার উপহার সামগ্রী,যা এখনো চলমান রয়েছে।এর পাশা পাশি সচেতনতা বৃদ্ধি, সাবান,মাস্ক,হ্যান্ড স্যানিটাইজার তিনি বিতারন করে যাচ্ছেন নিরলস ভাবে।
received_539371700290781-jpeg.398


পরিতাপের বিষয় হলো বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের মানবিক কাজ কর্মে ইর্ষান্বিত হয় অনেক সুশীল মহল।যেখানে উৎসাহ দিবে সেখানে তারা দিচ্ছে তিরস্কার।বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ করো কারো ব্যাক্তগত আক্রোশে প্রায়শ কলম সন্ত্রাসের স্বীকার।কিছু নামযাদা ফেইসবুক হলুদ সাংবাদিক রয়েছে যারা এই মানবিক কৃতকর্মে ঈর্ষান্বিত হয়।তাই উদ্যেশ্য করে ইনিয়ে বিনিয়ে ছাত্রলীগের বদনাম করার অপচেষ্টা করে কিন্ত জনগন অনিকের ভালোবাসায় মুগ্ধ হয়ে ছাত্রলীগকে ভালোবেসে ফেলেছে।আবার এমনও দেখা যায় ছাত্রলীগের সাবেক কিছু নেতাকর্মী যেখানে বর্তমানদের মানবিক কার্যকে স্বাগত জানাবে সেখানে তারা বামপন্থী সংগঠনকে আশার বাতিঘর হিসাবে দেখছে।সর্বোপরি সকল রাজনৈতিক ও ব্যক্তিগত প্রতিহিংসাকে জুবায়ের আদনান অনিক পরাজিত করে ভালোবাসায় মানবিক মুগ্ধতায় জয় করেছে মানবিক পৃথিবী।গর্ব করার মতো এমন সভাপতি আমরা সারা বাংলাদেশের প্রতিটি জেলায় চাই এমনটাই দাবি সাধারন মানুষের।
 

Attachments

Last edited:

বর্ণমালা এন্ড্রয়েড এপ

নতুন যুক্ত হয়েছেন

Top