নির্মম ভালোবাসা: বুনোহাঁস

Arafat Tonmoy(বুনোহাঁস)

সুপার ব্লগার
#1
বুনোহাঁসের অণুগল্প: নির্মম ভালবাসা!

মুহিব, তুখড় মেধাবী ছাত্র। পড়তো ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজে। যখন নবম শ্রেনীতে পড়তো সহপাঠী আয়লা সাবরিণকে খুব ভালবাসতো। তবে তা আয়লার আড়ালে। মুখ ফুটে কখনো বলতে পারেনি মুহিব।

এভাবে তিনটি বছর কেটে যাবার পরে, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে মুহিবের প্রিয় বন্ধু তন্ময়কে দিয়ে কিছু ফুল আর বেশ কিছু চিরকুট পাঠায়।

মুহিব আশায় দিন কাটালো। দেখতে দেখতে তাদের পরীক্ষা শেষ হয়ে রেজাল্টও দিলো। কিন্তু আয়লার কোন উত্তর নেই।

এরপর মুহিব স্কলারশিপ নিয়ে অস্ট্রেলিয়া গেলো।সেখানে পড়ালেখা শেষে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করলো।

চৌত্রিশ বছর বয়সে সে বাংলাদেশে বিয়ে করার জন্য এলো।
পরিবারের পছন্দমত ঠিক হলো। বিয়ের কাজও সম্পন্ন হলো।

কিন্তু কন্যাদানের সময় শ্বশুর আব্বার পাশে আয়লাকে কাঁদতে দেখে মুহিবের চক্ষুদ্বয় পুরাই বিচলিত!
--------বুনোহাঁস
 
Last edited by a moderator:

Khaled Al Mahmud

সুপার ব্লগার
#2
বুনোহাঁসের অণুগল্প: নির্মম ভালবাসা!

মুহিব, তুখড় মেধাবী ছাত্র। পড়তো ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজে। যখন নবম শ্রেনীতে পড়তো সহপাঠী আয়লা সাবরিণকে খুব ভালবাসতো। তবে তা আয়লার আড়ালে। মুখ ফুটে কখনো বলতে পারেনি মুহিব।

এভাবে তিনটি বছর কেটে যাবার পরে, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে মুহিবের প্রিয় বন্ধু তন্ময়কে দিয়ে কিছু ফুল আর বেশ কিছু চিরকুট পাঠায়।

মুহিব আশায় দিন কাটালো। দেখতে দেখতে তাদের পরীক্ষা শেষ হয়ে রেজাল্টও দিলো। কিন্তু আয়লার কোন উত্তর নেই।

এরপর মুহিব স্কলারশিপ নিয়ে অস্ট্রেলিয়া গেলো।সেখানে পড়ালেখা শেষে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করলো।

চৌত্রিশ বছর বয়সে সে বাংলাদেশে বিয়ে করার জন্য এলো।
পরিবারের পছন্দমত ঠিক হলো। বিয়ের কাজও সম্পন্ন হলো।

কিন্তু কন্যাদানের সময় শ্বশুর আব্বার পাশে আয়লাকে কাঁদতে দেখে মুহিবের চক্ষুদ্বয় পুরাই বিচলিত!
--------বুনোহাঁস
অনিন্দ্য ভালো সৃজন
 

নাবিল হাসান

সুপার ব্লগার
#6
কিন্তু কন্যাদানের সময় শ্বশুর আব্বার পাশে আয়লাকে কাঁদতে দেখে মুহিবের চক্ষুদ্বয় পুরাই বিচলিত!
এই লাইনটাই যেন সারা গল্প
 

বর্ণমালা এন্ড্রয়েড এপ

নতুন যুক্ত হয়েছেন

Top