বুক রিভিউ: শব্দের বেখেয়ালি আঁচড়

Arafat Tonmoy(বুনোহাঁস)

Moderator
বর্ণমালা স্টাফ
#1
বইয়ের নাম: শব্দের বেখেয়ালি আঁচড়।
ধরণ: একক কবিতা সংকলন।
কবি: অপরাজিতা অর্পিতা।
প্রকাশনা: নহলী।
মুদ্রিত মূল্য: ১৮০/-
প্রি-অর্ডার মূল্যা: ১০০/- (৩১শে জানুয়ারি পর্যন্ত)
প্রাপ্তিস্থান: নহলী
মিরপুর ডিওএইচএস, রোড নং: ১১, অ্যাভিনিউ: ৬, বাড়ি নং: ৮০৮
অনলাইন প্রাপ্তিস্থান: www.facebook.com/Noholibooks

অনেকদিন আগে একজন আমাকে বলেছিলেন, "বাঙালি কবিতা খায় না।" ঠিক বলা না, অনেকটা কটাক্ষ করেছিলেন। আমারও লেখালেখির শুরু কবিতা দিয়ে। বলতে গেলে কবিতা মিশে আছে রক্তে! কবিতা দিয়েই অযুত নিযুত পাঠকের মনে স্থান নেয়া যায়, কবিতাই বেঁচে থাকে চিরকাল!

যাইহোক, বলছিলাম এক নতুন বইয়ের কথা! "শব্দের বেখেয়ালি আঁচড়" অপরাজিতা অর্পিতার প্রথম একক কাব্যগ্রন্থ।
একনজরে সূচীপত্র:
তোমার অবহেলায় আমি,
খালি চোখে তোমায় দেখি,
সত্যি করেই বলছি,
আঠারো বছর পরে,
অমীমাংসিত,
অপেক্ষা কিংবা প্রতীক্ষা,
একনিষ্ঠ প্রেমিকা,
তোমার জন্য সস্তি,
ভালো থাকার অভিনয়,
অসাধারণ হয়ে ওঠার প্রতীক্ষা,
মধ্যবিত্ত,
প্রত্যাশিত আকাশ,
বিগত প্রণয়,
প্রাচীন প্রত্যুষ,
সত্ত্বার নিগূঢ় অনুরণন,
এবং আত্মবিশ্বাস,
নষ্ট কাব্য,
যদি তোমায় না পাই,
অজানা আমিত্বের নীল,
তোমার এক ফোঁটা ভুল,
বিচূর্ণতায় দেবতা,
বেলা অবেলা,
পুনরাবৃত্তি,
স্বপ্নচারী,
অন্বেষা,
শহরের কথকতা,
প্রথম প্রেম,
অতি ইচ্ছে,
অসম অন্বেষণ,
যন্ত্রণা,
নেশা,
অনিচ্ছে,
কৃষ্ণ বর্ণের মেয়ে,
নিথর নিলাদ্রী,
অনুরক্তি,
যে পাখি থে চেয়েছিল,
একে কি বেঁচে থাকা বলে,
স্বাগতিক প্রশ্নমালা,
মন্দ প্রেম,
অসমাপ্ত অর্থের সমাষ্টি,
স্বপ্নের মৃত্যু নেই,
বদলে গেছি আমি,
ভুলে যাই সব,
আজন্ম ছায়া,
মধ্যরাতে আয়নার অবয়ব,
আমার মন খারাপ থে পারতো,
আক্ষেপ,
মুখোশ,
প্রাক্তন,
প্রিয় বলে কিছু নেই,
কোনো এক শ্রাবণ বেলায়,
মুক্তি,
শীতের ভোরগুলো,
উপলব্ধি,
এবং অমানিশা।
-------
কতটা আবেগের গভীরতা থাকলে এমন লেখা যায়! প্রতিটি কবিতা হৃদয়কে আন্দোলিত করেছে বারংবার। অসাধারণ শব্দচয়ন, চমৎকার লেখনশৈলীতে এক কথায় মুগ্ধ হয়েছি।
পাণ্ডুলিপিটা পড়ে একটা ঘোরের ভেতর আছি, আশা করি বইটি আপনার মনও জয় করে নিবে.....


#প্রাণের নহলী:
নহলী শুধু একটি নামই নয়, নহলী একটি ভালোবাসার নাম। নহলী শব্দের অর্থ নবীন, নতুন। নহলীর কাজই হলো বিশেষ করে নবীনদের নিয়ে। নহলীতে রয়েছে একটি ব্যতিক্রধর্মী লাইব্রেরি, একটি ভিন্নধর্মী প্রকাশনী, একটি বুকশপ এবং একটি স্টুডেন্ট কনসাল্টেশন। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে সৃষ্টি হলেও এই সংগঠনের কার্যক্রম অনেক দুর এগিয়ে গিয়েছে। নহলী লাইব্রেরিতে এখন তিন হাজারের মতো দেশি-বিদেশি বই আছে, তবে এই সংখ্যা খুব দ্রুতই দশ হাজারে নেয়ার পরিকল্পনা আছে। এই লাইব্রেরির প্রধান বৈশিষ্ট্য দুটি।
ক. শুধু ঢাকা কেন্দ্রিক নয়, মোবাইল অ্যাফ ভিত্তিক এই অনলাইন লাইব্রেরি থেকে দেশের যেকোনো জায়গা থেকে যে কেউ বই নিতে পারবেন, সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।
খ. এখানে কেউ কোনো বই না পেলে, তা চাহিদা করার সাথে সাথেই কেনার ব্যবস্থা করা হবে। তাই একভাবে বলা যায়, এই লাইব্রেরিতে পৃথিবীর প্রায় সব বই'ই পাওয়া যাবে!
নহলী প্রকাশনী নবীন লেখকদের উৎসাহ যোগাতে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে তাদের বই ছাপাবে এবং প্রাপ্ত রয়্যালিটি প্রদান করবে। এক্ষেত্রে লেখার মানটাই বেশি প্রাধান্য পাবে। শুধুমাত্র বই ছাপানোর বিষয়টিই এখানে বিবেচ্য নয়, নহলী থেকে প্রকাশিতব্য সকল বই কয়েক পর্যায়ে কঠোর এডিটোরিয়াল প্যানেলের মাধ্যমে করা হবে বিধায় এখান থেকে প্রকাশিত প্রতিটি বইতে উন্নতমানের সাহিত্যের ছাপ খুঁজে পাবেন পাঠক। তাছাড়া সময়মত বই প্রকাশ ও লেখকের যোগ্য রয়্যালিটি প্রদানের বিষয়টি এখানে নিশ্চিত করা হবে।
নহলী বুকশপ, নহলী প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত বই বিক্রির অনলাইন মাধ্যম।

ওয়েবসাইট: www.noholi.com

আপনার পাঠ শুভ হোক।
written by: Arafat Tonmoy(বুনোহাঁস)
 

বর্ণমালা এন্ড্রয়েড এপ

ফেসবুকে বর্ণমালা ব্লগ

নতুন যুক্ত হয়েছেন

Top