• সুখবর........ সুখবর........ সুখবর........ বর্ণমালাকে খুব শিঘ্রই পাওয়া যাবে বাংলা বর্ণমালার ডোমেইন "ডট বাংলায়" অর্থাৎ আমাদের ওয়েব এড্রেস হবে 'বর্ণমালাব্লগ.বাংলা' পাশাপাশি বর্তমান Bornomalablog.com এ ঠিকানায়ও পাওয়া যাবে। বাংলা বর্ণমালায় পূর্ণতা পাবে আমাদের বর্ণমালা।

শবনম-সৈয়দ মুজতবা আলী

#1
img_20190426_001028-jpg.329


"শবনম" নিয়ে কি লেখা যায়?শব্‌নম, যে ছিল
'শরৎ-নিশির স্বপ্ন,
শিশির সিঞ্চিত প্রভাতের বিচ্ছেদ বেদনা'!!

চিরাচরিত প্রেমের উপন্যাস নয় এটি। বরং সম্পূর্ণ ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি ও হৃদয়স্পর্শী এক প্রেমের আখ্যান মুজতবা আলীর 'শবনম'।।

প্রেমের সংজ্ঞা কে নতুন ভাবে ভাবতে শেখাবে এই বই।সুন্দর বই, হৃদয়ঙ্গম করার এক বই, কাব্যিক এক বই। আক্ষেপ একটাই যে বড্ড তাড়াহুড়া করে পড়ে ফেলেছি। এই রস হঠাত পান করে ফেললে হবে না, ধীরে সুস্থে করতে হবে।।

উপন্যাসের নায়ক মজনূন ও নায়িকা শবনম, বুদ্ধিমত্তার দৌড়ে কেউই কারো চেয়ে কম যায় না। দুজনই কাব্যরসিক। একজন হাফিজ থেকে দু চরণ উদ্ধৃত করেন তো আরেকজন প্রত্যুত্তোরে রুমী শুনিয়ে দেন। উভয়ই ফার্সী ও ফরাসী ভাষার ওস্তাদি মারপ্যাঁচ দিয়ে কথা বলতে জানেন।।

এর রসে অবগাহন করতে করতে হবে শ্লথ বেগে। খুব সাধারণ কাহিনীকেও যে গদ্য-পদ্যের সংমিশ্রণে এতোটা অসাধারণ করে তোলা যায়- শবনম তার উজ্জ্বল নিদর্শন!!

এই আধো-কাব্য, আধো-উপন্যাস, আধো-প্রেমালাপের প্রতিটা লাইন একেকটি উপাখ্যান!!

এক কথায় বললে ‘শবনম’ হল গদ্যের আদলে লিখা একটা অসাধারণ প্রেমের কবিতা। অন্য কোন প্রেমের উপন্যাস পড়ে শবনমের মত মুগ্ধ হওয়া যাবে কী না আমি সন্দিহান।

বিশ শতকের খুব বেশি উপন্যাসে সম্ভবত নায়িকার এতখানি রোমান্টিক বর্ণনা দেখা যায় না। মধ্যযুগে এই জিনিসটার খুব চল ছিলো, এবং মুজতবা আলী উনিশশো ষাটেও যখন লিখলেন নায়িকার কপাল তৃতীয়ার ক্ষীণচন্দ্রের মত, বন-মল্লিকার পাঁপড়ির মত—তখনও শুনতে বেশ লাগলো। হয়তো বর্ণনার এই সৌন্দর্যগুলো চিরন্তন।।

কেবল ভাষার অসাধারণ ব্যবহারের জন্যই মুজতবা আলীর প্রতিটা লেখা পড়ে ফেলা যায়। বাংলা সাহিত্যের খুব বেশি লেখকের ভাণ্ডারে এতগুলো শব্দ ছিলো না—এ আমি অনায়াসে লিখতে দিতে পারি।উপমার ব্যবহারেও মুজতবা কম যান কী সে!!
শবনমের কণ্ঠের কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, “ঘুঙুরওয়ালা চরণচক্রপরা বাড়ির নতুন বউ চলাফেরা করার সময় যেরকম দক্ষিণী বীণা বাজে, ওর গলার শব্দ সেইরকম।”

আমার কাছে শেষপর্যন্ত "শবনম" এমন এক উপন্যাস যেখানে আপনার এই যুগলের স্বপ্নালু বাস্তবতায় মিশে যেতে হবে।।

আর যদি ফ্রেঞ্চ এবং আরবের অদ্ভুত মিশেলের নাচিয়ে, রিভলভারসমেত অনিন্দ্যসুন্দরী নায়িকাকে ভালো না লাগে, যদি প্রথম দর্শনে যুগলের কবিতার ছত্র বিনিময় পরবর্তীতে প্রকট প্রেম হয়ে ওঠা, বোধগম্য নাও হয় তাহলেও স্রেফ প্রেমের পাঠ নিতেও পড়া যেতে পারে "শবনম"!!
 

বর্ণমালা এন্ড্রয়েড এপ

নতুন যুক্ত হয়েছেন

Top